সড়ক দুর্ঘটনা নয়, পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়: পিবিআই

রাজধানী টাইমসের সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

নরসিংদীর শিবপুরে যুবদল নেতা ব্যবসায়ী মনির হোসেন ও বিএনপি নেতা শাহান শাহ আলম বিপ্লবকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে সড়ক দুর্ঘটনা নয় বলে চালানোর চেষ্টা করা হয় বলে জানিয়েছে পিবিআই। বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান পিবিআই প্রধান বনজ কুমার মজুমদার।

নিহত ব্যবসায়ী মনির হোসেন জেলা যুবদলের সদস্য ও বেলাব উপজেলার বারৈচা গ্রামের সাবেক মেম্বার তোতা মিয়ার ছেলে এবং বিপ্লব রায়পুরা উপজেলার উত্তর বাখরনগর ইউনিয়নের লোচনপুর গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। বিপ্লব উত্তর বাখরনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাও করেন বলে জানান তার পরিবার। প্রার্থী হওয়া নিয়ে প্রতিপক্ষের সাথে বিরোধ ছিল বলে দাবি তাদের।

এই জোড়া হত্যার ঘটনায় জড়িত ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই। গত কয়েকদিন কুমিল্লা ও নরসিংদীতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- মোহাম্মদ মামুন মিযা, সোহাগ মিযয়া ও মাসুদ মিযা। তারা এরইমধ্যে আদালতে ১৬৪ ধারায স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিযেেছ। জবানবন্দিতে তারা এ ঘটনার দায স্বীকার করেছে এবং এটি যে পরিকল্পিত হত্যার ঘটনা আদালতকে তাও জানিযেেছ।’
পিবিআই প্রধান বনজ কুমার মজুমদার বলেন, রায়পুরার লোচনপুরের বিপ্লবের সাথে বন্ধুত্ব ছিলো পাশের বেলাব উপজেলার বারৈচা গ্রামের মো: মাসুম শাহ’র। তারা নিজ এলাকায় ডিস ব্যবসায় জড়িত ছিলেন। পরে অর্থ লেনদেন নিয়ে দু’জনের মধ্য ঝামেলা তৈরি হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বিপ্লবকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে মাসুম শাহ ও তার সহযোগীরা। যা পরে দুর্ঘটনা বলে চালানোর চেষ্টা করা হয়।

বিজ্ঞাপন

চাঞ্চল্যকর এই হত্যার ঘটনায় বনজ কুমার মজুমদার আরও বলেন, নিহত বিপ্লব নিজেও ৪টি হত্যাসহ ১০টি মামলার আসামি ছিলেন। যার মধ্যে দুলাল গাজী নামে একজনকে হত্যার দাযে কিছুদিন জেলও খাটতে হযেেছ তাকে। আর ওই ঘটনার সাক্ষীদের মধ্যে ৪ জনের দুজনকে ডাকাত বলে গণপিটুনিতে খুন করা হয।

এমন চলমান পরিস্থিতিতে পিবিআইযরে বিরদ্ধে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালযে অভিযোগ দেন বিপ্লব। ২০২১ সালের ১২ আগস্ট পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এই অভিযোগের তদন্তের বিষয়ে কথা বলা শেষে সেখান থেকে মোটরবাইকে বাড়ি ফিরছিলেন বিপ্লব ও সহযোগী মনির। ফেরার পথেই মাইক্রোবাসের সাথে সংঘর্ষে মারা যায বিপ্লব ও তার সাথে থাকা বন্ধু মনির হোসেন। মামলাটি সডক দুর্ঘটনা বলে চার্জশীট দিলে তাতে নারাজি প্রদান করে পিবিআই এ হস্তান্তর করতে অনুরোধ জানায বিপ্লবের পরিবার।

এরপর ওই সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহতের বিষয়ে তদন্তে নেমে পিবিআই জানতে পারে, বিপ্লবের ডিস ব্যবসার পার্টনার বারৈচা গ্রামের মাসুমের সাথে আর্থিক বিষযে ঝামেলা ছিল। আর ঘটনার দিন মাসুমের মালিকানাধীন মাইক্রোবাসটিতে বেশ কিছু যাত্রী ছিল। যারা ঘটনার পর পালিযে যায। এছাডা ঘটনাস্থলে মাসুমকে দেখা গেছে বলেও জানতে পারে পিবিআই। পরে তিনদিন অভিযান চালিযে মাসুমসহ তার ৪ সহযোগীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বেরিযে আসে ঘটনার আসল রহস্য। আসামীরা আদালতে জবানবন্দী প্রদান করে হত্যার পূর্ব পরিকল্পনা ও হত্যার বিবরণ দেয়।

বিজ্ঞাপন

পিবিআই প্রধান আরও বলেন, ‘আসামিদের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দির বিষয়বস্তু সামঞ্জস্যপূর্ণ হলেও ২/১টি বিষয়ে নতুন ও আলাদা তথ্য দেওয়ায় এসব যাচাই করা হচ্ছে। আসামিদের দেওয়া তথ্যমতে, বিদেশ থেকে ওমর ফারক মোল্লা নামে এক ব্যক্তি এই হত্যা ঘটানোর জন্য টাকা পাঠায। ওমর ফারক ঘটনার আগে থেকেই দেশের বাইরে থাকায় তার সংশ্লিষ্টতা ও অর্থ লেনদেনের বিষয়টি যাচাই করে দেখা হচ্ছে। আসামিদের দেওয়ার তথ্য ও তদন্তে এ হত্যাকাে আরও ১০ জনের সংশ্লিষ্টতা রযেেছ। এ বিষযটিও খতিযে দেখা হচ্ছে।’

হত্যা সম্পর্কে আসামিরা পিবিআইকে জানায়, বিপ্লবকে হত্যার জন্য বেশ কযকেবার চেষ্টা করা হলেও তৃতীয আসামীর দেওযা তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায়, এই জোড়া খুনের ঘটনায় আসামিদের মূল টার্গেট ছিল শাহান শাহ আলম ওরফে বিপ্লব। তাকে হত্যার উদ্দেশে ঘটনার ১৫/২০ দিন আগে আসামি মামুন মিয়ার নেতৃত্বে রায়পুরার লোচনপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় এলাকায় বসে পরিকল্পনা করা হয়।

আসামিদের মতে, বিপ্লব খুব বেড়ে গেছে, সে সবার জন্য হুমকির কারণ। তাই তাকে মেরে ফেলার পরিকল্পনা করা হয়। ২০২১ সালের ৪ আগস্ট বিএনপি নেতা শফিকুল ইসলাম মৃত্যুবরণ করায়, তার জানাজায় বিপ্লব অংশগ্রহণ করতে পারে, এ ধারণা থেকে আসামিরা লোচনপুরের একটি এলাকায় হত্যার প্রস্তুতি নিয়ে অবস্থান নেয়। কিন্তু বিপ্লব জানাজায় না যাওয়ায় সেদিন আসামিরা তাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারেনি। এর কয়েকদিন পরে বিপ্লব বাড়িতে আসলে পথে তাকে আঘাত করা হবে পরিকল্পনা করে অবস্থান নেয আসামিরা। কিন্তু ওইদিন বিপ্লবের সঙ্গে ৪টি মোটরসাইকেলে ৬/৭ জন লোক থাকায় আসামিরা তাকে আক্রমণ না করে ফিরে যায়।

সর্বশেষ ঘটনার দিনে ২০২১ সালের ১২ আগস্ট আসামিরা প্রথমে লোচনপুর থেকে পরিকল্পনা করে বিপ্লবকে হত্যার উদ্দেশ্যে দলবদ্ধভাবে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রসহ নরসিংদী জেলা শহরে রওয়ানা করে। পথে বারৈচা বাসস্ট্যান্ড হতে কালো মাইক্রোবাসটি সংগ্রহ করে। তথ্য সংগ্রহ করে দেওয়ার জন্য মোটরসাইকেলে করে সোহাগ ও ফয়সাল নরসিংদীতে আসে। অন্যান্য আসামি মাইক্রোবাসযোগে নরসিংদী শহরের ভেলানগর জেলখানা এলাকায় অবস্থান করতে থাকে।

আসামি সোহাগ ও ফয়সাল ভিকটিম বিপ্লবের সার্বক্ষণিক মুভমেন্ট ফলো করে অন্যদের জানাতে থাকে। বিপ্লব ও মনির মোটরসাইকেলযোগে মহাসড়কে উঠলে সোহাগ তাৎক্ষণিক তথ্য জানিয়ে দিলে হত্যার উদ্দেশ্যে অন্য আসামিরা ভিকটিমদের অনুসরণ করতে থাকে। প্রথমে একবার পেছন থেকে আঘাত করে ব্যর্থ হয়ে সামনে গিয়ে আবারও অবস্থান করে এবং ভিকটিমরা মোটরসাইকেল নিয়ে মামলার ঘটনার স্থলে পৌঁছামাত্র কালো মাইক্রোবাসটি পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে বিপ্লব ও মনির নিহত হন।

 

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল rajdhanitimes24.com এ লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয়- মতামত, সাহিত্য, ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার ছবিসহ লেখাটি পাঠিয়ে দিন rajdhanitimes24@gmail.com  এই ঠিকানায়।

শীর্ষ সংবাদ:
সেভ দ্য রোডের প্রতিবেদন: ১৫ দিনের ঈদযাত্রায় ২৯৪ প্রাণের মৃত্যুমিছিল কালাইয়ে ৪ জুয়ারি আটক লালমোহন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন যাঁরা গাজীপুরে অসহায় পরিবারকে বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদের পাঁয়তারা তীব্র গরমে বিপর্যস্ত জনজীবন, উত্তরাঞ্চলে তাপমাত্রার রেকর্ড শ্যালক রুবেলকে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের নির্দেশ প্রতিমন্ত্রী পলকের রাস্তা বন্ধ করে দেয়াল নির্মাণ অবরুদ্ধ ১৬ পরিবার ভ‌রি‌ ১ লাখ ১৯ হাজার ৬৩৮ টাকা: বেড়েই চলছে সোনার দাম দুপুরের মধ্যেই হতে পারে ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড়, হুঁশিয়ারি সংকেত বিয়ের দাবিতে কলেজ ছাত্রীর অনশন, প্রেমিক পলাতক সন্তান জন্ম দিয়ে হাসপাতাল থেকে পালালেন মা পাইকগাছায় তীব্র গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন, বিপাকে নিম্ন আয়ের মানুষ গোয়ালন্দে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত গাবুরায় নদীরক্ষা বাঁধে ফাটল, আতংকিত গ্রামবাসী ঝালকাঠিতে ট্রাক-প্রাইভেটকার-অটোরিকশার সংঘর্ষ, নিহত ১২ ফরিদপুরের নগরকান্দায় চুরির সন্দেহে ১২ বছরের শিশুকে জিআই পাইপ দিয়ে পেটানোর অভিযোগ রাত ১টার মধ্যে যেসব জায়গায় ৮০ কি.মি. বেগে ঝড়ের পূর্বাভাস ফিটনেস, রুট পারমিট, ট্যাক্স টোকেন- কিছুই ছিল না বাসটির গাজীপুরে বসতবাড়িতে আগুন, ১২ কক্ষ পুড়ে ছাই, কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি ছাগলে গাছের পাতা খাওয়া নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১