মিয়ানমারের সেনাদের ফিরিয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে

মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ সংঘাতের কারণে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা দেশটির বিভিন্ন বাহিনী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের ফিরিয়ে নিতে নৌবাহিনীর একটি জাহাজ পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে জান্তা সরকার।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কয়েকজন কর্মকর্তা কালবেলাকে এ তথ্য জানিয়েছেন। সবকিছু ঠিক থাকলে খুব শীঘ্রই জাহাজটি কক্সবাজার উপকূলে পৌঁছাবে বলে তারা জানান তিনি।

আসা সেনা ও তাদের পরিবারের সদস্যদের খুব দ্রুতই ফিরিয়ে নিবে মিয়ানমার। তাদের সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ে এ বিষয়ে আমাদের সাথে আলোচনা হয়েছে। সেনাদের ফিরিয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। খুব দ্রুতই তারা জাহাজ পাঠাবে।

বিজ্ঞাপন

তবে ঠিক কবে নাগাদ এই প্রক্রিয়া শুরু হবে সেটি নিশ্চিত করে বলেননি তিনি। কূটনৈতিক চিঠির মাধ্যমে মিয়ানমার খুব দ্রুতই জাহাজ পাঠানোর কথা জানিয়েছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, যে জাহাজটি আসবে সেটি একটি ট্রুপ ক্যারিয়ার৷ যেটির সক্ষমতা প্রায় ৫০০ জন। বাংলাদেশে আশ্রিত সবাইকে একটি জাহাজেই পাঠানো সম্ভব।

বর্তমানে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা দেশটির বিভিন্ন বাহিনী ও তাদের পরিবারের সদস্যসহ প্রায় সাড়ে তিনশ নাগরিককে টেকনাফের দুটি স্কুলে রাখা হয়েছে। তারা বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তত্ত্বাবধানে রয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

তাদের ফিরিয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মন্ত্রণালয়ের আরেক কর্মকর্তা বলেন, আগে তাদের সবাইকে কক্সবাজার আনতে হবে। কারণ জাহাজটি অনেক বড় হওয়ায় সেটি উপকূলে ভিড়তে পারবে না। নিরাপত্তা মেনে ছোট ছোট নৌকায় তাদের জাহাজের কাছে নেওয়া হবে।

এর আগে গত বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সভাপতিত্বে মন্ত্রণালয়ে সীমান্তে নিরাপত্তাবিষয়ক এক আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক হয়।

বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, পালিয়ে আসা সেনা ও অন্যদের বাংলাদেশ আকাশপথে ফেরত পাঠানোর চিন্তা করছে। কিন্তু মিয়ানমার সেটিতে রাজি হয়নি। তারা সমুদ্রপথে ফেরত নিতে চায়।

এদিকে নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে তাদের গভীর সমুদ্র অঞ্চল দিয়ে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে বলে গত বৃহস্পতিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) মন্ত্রণালয়ের সাপ্তাহিক মিডিয়া ব্রিফিংয়ে জানান মুখপাত্র সেহেলী সাবরিন।

শীর্ষ সংবাদ:
মাদারীপুরে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৫ বোনকে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছে ফেরার পথে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ভাই নিহত শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন পাইকগাছায় সরকারি জমিতে গড়ে ওঠেছে অসংখ্য অবৈধ স্থাপনা, হারাচ্ছে কোটি টাকার রাজস্ব শরণখোলায় একুশের বই মেলায় রক্তদান কর্মসূচির উদ্বোধন দুই যুগের যাত্রী হয়রানির অবসান করলেন দুই সংসদ সদস্য শিক্ষক হেনস্থার: পবিপ্রবিতে ত্রি-মুখী আন্দোলনে উত্তাল ক্যাম্পাস মায়ের জানাজায় অংশ নিতে দেশে ফিরে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল ২ জনের স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে স্বামীর আত্মহত্যা রোজার আগে সরকারিভাবেই চিনির দাম বাড়ল কেজিতে ২০ টাকা চেম্বার ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অ্যানেসথেসিয়া প্রদান করা যাবে না: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ঝিনাইদহে রাতে- দিনে অবৈধভাবে মাটি বিক্রির রমরমা ব্যবসা, নিরব ভুমিকায় প্রশাসন হুমকির মুখে বাংলা ভাষা প্রধানমন্ত্রীকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন খতনা করাতে গিয়ে শিশুর মৃত্যু: দুই চিকিৎসককে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে ভাষা আন্দোলনের পথ দিয়েই আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি: প্রধানমন্ত্রী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়: বাংলা ও নিজস্ব বর্ণমালা নিয়ে ভাষা শহিদদের স্মরণে আদিবাসী শিক্ষার্থীরা বকশীগঞ্জে দুই মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ১ বাকৃবিতে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত বাস-ট্রলিতে সংঘর্ষে বাড়িতে ঢুকল বাস, নিহত ২, আহত ১০