মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের পদত্যাগ

ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে উদ্ধব ঠাকরে পদত্যাগ করেছেন। চলমান রাজনৈতিক টনাপোড়েনের মধ্যেই বুধবার (২৯ জুন) রাতে ইস্তফা দেন হিন্দুত্ববাদী দল শিবসেনার এই নেতা। এতে করে রাজ্যটিতে শিবসেনার নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন জোট সরকার পতনের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছে।

সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, বুধবার মুখ্যমন্ত্রীর সরকারি ফেসবুক পেইজে লাইভ বক্তৃতা দেওয়ার সময়ে নিজের পদত্যাগের ঘোষণা দেন উদ্ধব ঠাকরে। মূলত মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগের সঙ্গে সঙ্গে মহারাষ্ট্রের শিবসেনা, কংগ্রেস আর জাতীয়তাবাদী কংগ্রেস পার্টির জোট সরকার পতনের দ্বারপ্রান্তে এসে দাঁড়িয়েছে।

এছাড়া এই ঘোষণার সঙ্গেই শিবসেনার অভ্যন্তরে যে সংকট তৈরি হয়েছিল, তার একটা অধ্যায় শেষ হল বলে মনে করা হচ্ছে। অবশ্য উদ্ধব ঠাকরে পদত্যাগের ঘোষণা দেওয়ার আগে ভারতীয় সময় রাত ৯টায় সুপ্রিম কোর্ট আদেশ দেয়, বৃহস্পতিবার ঠাকরেকে বিধানসভায় শক্তি পরীক্ষার মুখোমুখি হতে হবে। আদালত এই প্রক্রিয়ায় কোনোভাবেই হস্তক্ষেপ করবে না।

বিজ্ঞাপন

শাসক দলের একটা বড় সংখ্যক বিধায়ক উদ্ধব ঠাকরের বিরোধিতা করায় রাজ্যটির গভর্নর মুখ্যমন্ত্রীকে শক্তি পরীক্ষা দিতে নির্দেশ দিয়েছিলেন। তার বিরুদ্ধেই শিবসেনা সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছিল। তবে সেখানে আদেশ তার বিরুদ্ধে যাওয়ার পরেই পদত্যাগ করেন শিবসেনা প্রধান।

বিবিসি বলছে, শিবসেনা কট্টর হিন্দুত্ববাদী দল হওয়া সত্ত্বেও কংগ্রেস আর জাতীয়তাবাদী কংগ্রেস পার্টির (এনসিপি) সঙ্গে জোট সরকার চালাচ্ছিল। তবে শিবসেনারই এক নেতা একনাথ শিন্ডের নেতৃত্বে দলের কিছু বিধায়ক চলতি মাসের ২১ তারিখ মুখ্যমন্ত্রী ঠাকরের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেন।

প্রথমে কয়েকদিন গুজরাটে, তারপর বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত আসামের গুয়াহাটিতে কাটিয়ে বুধবার রাতেই একটি ভাড়া করা বিমানে গোয়ায় পৌঁছিয়েছেন শিন্ডে ও তার সঙ্গী বিধায়করা। প্রথমে বিদ্রোহীদের সংখ্যা ছিল ১১, তবে শেষমেশ শিন্ডের দাবি অনুযায়ী তার সঙ্গে ৫০ জন বিধায়ক রয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

তবে মহারাষ্ট্রের রাজ্যপালের কাছে একটি চিঠি দিয়ে সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও বিজেপি নেতা দেভেন্দ্র ফাডনবীশ দাবি করেছেন, ৩৬ জন বিধায়ক মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে আর সমর্থন করছেন না। সেই চিঠির ভিত্তিতেই রাজ্যপাল বিধানসভায় শক্তি পরীক্ষার নির্দেশ দেন।

বিদ্রোহী বিধায়ক ও তাদের নেতা একনাথ শিন্ডের বক্তব্য হচ্ছে, শিবসেনার স্বাভাবিক জোট সঙ্গী ছিল বিজেপি। দু’টি দলের রাজনৈতিক চিন্তাভাবনাও হিন্দুত্বকে কেন্দ্র করে। আবার তারা সর্বশেষ নির্বাচনেও লড়েছিল জোট বেঁধে।

কিন্তু ক্ষমতা ভাগাভাগি নিয়ে একমত না হওয়ায় মতাদর্শগতভাবে সম্পূর্ণ বিরোধী মেরুতে থাকা কংগ্রেস আর জাতীয়তাবাদী কংগ্রেস পার্টির সঙ্গে জোট বাঁধেন উদ্ধব ঠাকরে। দলকে বিজেপির সঙ্গে ফের জোট বাধার দাবি করছিলেন শিন্ডে। তার গোষ্ঠীকেই আসল শিবসেনা বলেও দাবি করেন তিনি।

সূত্র: বিবিসি

শীর্ষ সংবাদ:
বড় দুঃসংবাদ পেল ইমরান খানের পিটিআই গাজীপুরে ভবনের ছাদ থেকে পড়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু ৩৮ বছর পর বিশ্ব কোরআন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের রেকর্ড ১৩ বছর পালিয়ে থেকেও শেষ রক্ষা হলো না, র‍্যাবের হাতে ধরা তানোরে আলুর দাম নিয়ে কৃষকদের দুশ্চিন্তা মহাসড়কে অবৈধ দোকান উচ্ছেদ অভিযান টেকনাফে হোয়াইক্যংয়ে এক দিন মজুরকে পিঠিয়ে হত্যা চাটমোহর উপজেলা আ. লীগ সভাপতির মৃত্যুতে এমপি মকবুলের শোক ঝিনাইদহে অবৈধভাবে মাটি কাটা ও বিক্রির অপরাধে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা জয়পুরহাটে পুলিশ সুপার ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়: ফুল দেওয়াতে সীমাবদ্ধ শিক্ষক সমিতির কার্যক্রম কালাইয়ে ৫৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটিতেও নেই ম্যানেজিং কমিটি শেরপুরে ২০ পরীক্ষার্থী বহিষ্কার, ১৯ শিক্ষককে অব্যাহতি বাকৃবিতে নারী শিক্ষার্থীকে উত্ত্যক্ত করায় তিন বহিরাগতকে মারধর ভাঙ্গুড়ায় স্বামীর সঙ্গে মনোমালিন্য, গৃহবধূর আত্মহত্যা রাজশাহীতে বড়ছে বীজ পেঁয়াজ চাষ রমজানে দ্রব্যমূল্য বাড়ালে কঠোর ব্যবস্থা: সালমান এফ রহমান শিক্ষার মাধ্যম হউক মাতৃভাষায় অক্ষুন্ন থাকুক ভাষার মর্যাদা নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে গুলির শব্দ নেই, মাঠে ফিরেছেন কৃষকরা মাদারীপুরে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৫