বাকৃবিতে প্রায় ৩ কোটি টাকার পিএইচডি ডরমেটরির উন্নয়ন ও সংস্কার কাজে গড়মিলের অভিযোগ

রাজধানী টাইমসের সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) পরমানু বিজ্ঞানী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া পিএইচডি ডরমেটরি ভবনের উন্নয়ন ও সংস্কার কাজ চলমান। পূর্বের একতলা ভবনটির দ্বিতীয় তলা নতুন করে নির্মাণ এবং নিচতলা সংস্কার (সিভিল, সেনেটারি ও বৈদ্যুতিক) মিলিয়েই শিডিউলে পুরো আর্থিক হিসাব দেখানো হয়েছে ৩ কোটি ৩৮ লাখ ১৮ হাজার ১০ টাকা। আর্থিক হিসাব নিচতলা এবং দ্বিতীয় তলা উভয়ের জন্য হলেও আর্থিক স্বল্পতার কারণে বর্তমানে কেবল দ্বিতীয় তলা নির্মাণের কাজ চলমান।

এদিকে কাজের শিডিউলে ভবন নির্মাণে ইটের কাজ, প্লাস্টার এবং রডসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় উপাদান সামগ্রীতে ২ থেকে ৩ গুণ পর্যন্ত অতিরিক্ত এবং কিছু ক্ষেত্রে একই উপাদান দুইবার করে ধরে হিসাব করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত একাধিক শিক্ষক ও কর্মকর্তা। নেই কোনো ফাউন্ডেশনের কাজ, তবে শুধু ২য় তলা তৈরিতেই এতো টাকা কেনো লাগছে? এমন গড়মিলের বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন মহলে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। তবে অভিযোগগুলো ভিত্তিহীন ও ষড়যন্ত্রমূলক বলে দাবি করেছেন কাজের সাথে সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীগণ ও কাজের মনিটরিং কমিটির সদস্যরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অভিযোগকারীরা তাদের অভিযোগে বলেন, শিডিউলে অতিরিক্ত ইটের ব্যবহার, অতিরিক্ত রডের ব্যবহার, ঢালাই কাজে অতিরিক্ত বিল তৈরি, অতিরিক্ত সিমেন্টসহ সব কিছুতেই অতিরিক্ত ব্যয়ের বাজেট ধরা হয়েছে। যেখানে অর্ধেক পরিমাণ উপাদান সামগ্রী দিয়ে কাজ করা সম্ভব সেখানে অতিরিক্ত সামগ্রীর হিসাব দেখিয়ে ব্যয়ের বাজেট করা হয়েছে। এছাড়াও অভিযোগে আরও জানানো হয়, পুরো কাজের শিডিউলে ফ্লোর তৈরিতে অতিরিক্ত টাইলস ধরা হয়েছে এবং দুইবার করে সেটির ব্যয় দেখিয়ে হিসাব করা হয়েছে। প্লাস্টিক ও কাঠের দরজার চৌকাঠ তৈরিতেও অতিরিক্ত বাজেট ধরা হয়েছে। এমনকি দরজার হিসাব সংখ্যায় না করে কাঠ বা প্লাস্টিকের পরিমাণ (বর্গ ফুট) দিয়ে বাজেট করা হয়েছে যেখানে সাধারণত দরজার বিষয়টি সংখ্যায় হিসাব করা হয়। নিচ তলার সংস্কারের জন্যে আলাদা বাজেট করা আছে তবুও তারা নিচ তলার কাজ করছে না। নিচ তলার বাজেটও ওপর তলার কাজে ব্যয় করা হবে। তাহলে এতো টাকা দিয়ে কি কাজ হচ্ছে?

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে ওই কাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত পূর্ত: নির্মাণ ও সংরক্ষণ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী (সিভিল) মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শিডিউল তৈরির সময় ভুলবশত প্রথম ও দ্বিতীয় তলার কাজ এক তালিকায় করা হয়েছিলো। পরবর্তীতে এটি সংশোধন করা হয়েছে। বাজেট স্বল্পতার কারণে প্রথম তলার সংস্কার কাজ কিছুটা কমানো হয়েছে। দ্বিতীয় তলার কাজ শেষ হওয়ার পর যদি বাজেট অবশিষ্ট থাকে তাহলে সেই অর্থ দিয়ে প্রথম তলার সংস্কার কাজ শুরু করা হবে।

বিভিন্ন কাজে অতিরিক্ত উপাদান সামগ্রীর হিসাব দেখানোর অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, আমরা প্রথমে যেকোনো কাজ করার ক্ষেত্রে একটি আনুমানিক হিসাব তৈরি করি। পরবর্তীতে যতটুকু কাজ করা হয় সেই কাজের প্রকৃত ব্যয়ের হিসাব তৈরি করে বিল তৈরি করি। এখানে অতিরিক্ত সামগ্রী দেখিয়ে বিল করার কোনো সুযোগ নেই। আমরা যে কাজ করছি সবই দৃশ্যমান। যে কেউ দেখলেই কাজের পরিমাণ ও গুণগত মান বুঝতে পারবেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন কাজগুলো যাতে বন্ধ হয়ে যায় এ কারণে একটি চক্র এসকল মিথ্যা তথ্য প্রচার করছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. এমদাদুল হক চৌধুরী বলেন, যেহেতু এটি ভবন নির্মাণ বিষয়ক কাজ তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রকৌশলী এ ব্যাপারে ভালো বলতে পারবেন। তবে আমাকে যতটুকু হিসাব দেখানো হয়েছে এবং আমি ওই নির্মাণকাজ পরিদর্শন করে কাজের পরিমাণ যতটুকু পেয়েছি তাতে উপাদানের হিসাবে গরমিল আছে বলে আমার মনে হয় নাই। তবে গড়মিলের সঠিক প্রমাণ কেউ দিতে পারলে অবশ্যই তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রকৌশলী মো. শাহীন ইসলাম খান বলেন, কাজ যতটুকু হচ্ছে সবটুকুই দৃশ্যমান। এখানে কারচুপির কোনো সুযোগ নাই। প্রথমবার শিডিউল তৈরির সময় নিচতলা ও দ্বিতীয় তলার কাজ একসাথে ধরে শিডিউল করার কারণে টাইলস, প্লাস্টারসহ কিছু কাজের হিসাব দুইবার করে চলে এসেছিলো। এখন যেহেতু আগে দ্বিতীয় তলার কাজ করতে হচ্ছে তাই ওই শিডিউল সংশোধন করা হয়েছে। আমরা মনিটরিং কমিটির সাথেও আলোচনা করেছি। তাদেরকে আমাদের সকল কাজের পরিমান ও গুনগতমানের হিসাব দেখিয়েছি। এসকল কাজের ক্ষেত্রে সামগ্রীর পরিমাণ আগেই শতভাগ সঠিকভাবে অনুমান করা সম্ভব নয়। তবে পূর্ব অনুমানের ভিত্তিতে কখনোই কোনো বিল করা হয় না। যতটুকু কাজ প্রকৃতপক্ষে হচ্ছে ঠিক ততটুকুরই বিল দেওয়া হচ্ছে।

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল rajdhanitimes24.com এ লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয়- মতামত, সাহিত্য, ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার ছবিসহ লেখাটি পাঠিয়ে দিন rajdhanitimes24@gmail.com  এই ঠিকানায়।

শীর্ষ সংবাদ:
রাতভর ইরানের হামলা ঠেকাতে ইসরায়েলের খরচ বিলিয়ন রানীশংকৈলে কুলিক নদীতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু নানা আয়োজনে পাইকগাছায় পহেলা বৈশাখ বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ পালন গোয়ালন্দ উপজেলা প্রশাসনের বর্ণাঢ্য আয়োজনে মঙ্গল শোভাযাত্রা সিঙ্গাইর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপন কাউখালীতে নববর্ষ উপলক্ষে বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত ৫ মিলিয়ন ডলারে মুক্তি পেয়েছে এমভি আব্দুল্লাহ ডলারভর্তি ব্যাগ পাওয়ার ৮ ঘণ্টা পর ২৩ নাবিকদের মুক্তি দেয় দস্যুরা কচুয়ায় নানা আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপন মাটিরাঙ্গায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপন ত্রিমুখী হামলা ঠেকাতে ব্যস্ত ইসরায়েল, সঙ্গ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র বর্ষবরণে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি যশোরের ঐতিহ্যবাহী শুড়িরডাঙ্গায় চড়কপূজা অনুষ্ঠিত পাইকগাছার সোলাদানায় লিজ ঘের দখলে ব্যর্থ হয়ে প্রান নাশের হুমকি: আদালতে মামলা শ্রীপুরে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষণা দিলেন মৌসুমি সরকার ঝালকা‌ঠির সুগন্ধা নদীর স্রোতে ভেসে গেলো স্কুলছাত্র সরকার হজযাত্রীদের খরচ কমানোর কারণে হজ যাত্রী সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে: ধর্মমন্ত্রী মুন্সিগঞ্জে আ.লীগের দুই পক্ষে সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ হয়ে তরুণের মৃত্যু পহেলা বৈশাখে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই লালমোহনে প্রতিপক্ষের হামলায় গর্ভবতী নারীসহ আহত ৩