ক্লিনিক ডায়াগনস্টিক মালিকদের এক তরফা রায়, এ যেন পাকিস্তানের শাসনকেও হার মানায়

বাক স্বাধীনতা কেঁড়ে নিয়ে এক তরফা রায় ও সেই রায় কে বাস্তবায়ন করার লক্ষে এক পক্ষ কে চাপিয়ে দেওয়া রিতিমতো ব্যবসায় পরিণত হয়ে পত্নীতলা উপজেলা ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক মালিক সমিতির। এই অভিযোগ অনেক পুরানো। তবে এইবার মিললো তার সত্যতা।

পত্নীতলা উপজেলার নজিপুরে দীর্ঘদিন ১ বছর থেকে সুনামের সাথে ব্যবসা করে যাচ্ছিল সিটি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার নামে একটি প্রতিষ্ঠান। শেয়ারে ব্যবসা হওয়ায় কিছুদিন পূর্ব থেকে চলছিল মনমালিন্য। অত্র প্রতিষ্ঠানের অন্যতম শেয়ার মালিক মোঃ হারুন অর রশিদ পত্নীতলা উপজেলা ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক মালিক সমিতি বরাবর হিসাব গরমিলসহ বিভিন্ন অনিয়ম নিয়ে লিখিত অভিযোগ করেন অপর শেয়ার মালিক মোঃ মনিয়ার হোসেন মানির এর বিরুদ্ধে।

সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে শনিবার ৬ জানুয়ারী সমাধানের লক্ষে অত্র সমিতির পত্নীতলা উপজেলার সভাপতি মোঃ মিজানুর রহমানের নেতৃত্ব আলোচনায় বসে। আলোচনার এক পর্যায়ে বাদী মোঃ হারুন অর রশিদ ও বিবাদী মোঃ মনিয়ার হোসেন মনির উভয়ে বলেন আমরা একক ভাবে প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করতে চাই। তাদের এমন প্রস্তাবের প্রক্ষিতে হারুণ অর রশিদ কে কোন প্রকার সুযোগ না দিয়েই মনিয়ার হোসেন মনিরের পক্ষ নিয়ে এক প্রকার জোড় পূর্বক ৪ লক্ষ ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি করতে বাদ্ধ করে মালিক সমিতির কতিপয় ব্যক্তি।

বিজ্ঞাপন

শুধু তাই নয় নিয়মবহির্ভূত ভাবে সিটি ক্লিনিকের ৪০ হাজার টাকা জরিমানও করেন পত্নীতলা উপজেলা ক্লিনিক ডায়াগনস্টিক মালিক সমিতি। এবিষয়ে নওগাঁ জেলা ক্লিনিক ডায়াগনস্টিক মালিক সমিতির সভাপতি ডা. মোঃ ইসকেন্দার বলেন, তারা কিভাবে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেন তা আমার জানা নেই। আমার জানা মতে তারা কোন ভাবেই কোন ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের জরিমানা করতে পারেনা।

এবিষয়ে অত্র সমিতির অন্যতম সদস্য মোরশেদ আলম, নাজিম বাবু ও আব্দুল জলিল বলেন, হারুন কে প্রতিষ্ঠানটি ক্রয় করার সুযোগ দেওয়া উচিত ছিলো।

ক্লিনিক ডায়াগনস্টিক মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, হাউজে সকলের পরামর্শ অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখানে পক্ষ নেবার কিছুই নেই।

বিজ্ঞাপন

বাদী হারুন অর রশিদ বলেন, আমি সকলের সামনে প্রস্তাব দিয়েছিলাম তিনি ( মনিয়ার মনির ) পূর্বে যেভাবে অংশ কিনে নিয়েছিলেন আমিও সেই ভাবেই কিনতে চাই। কিন্তু তারা আমাকে সেই সুযোগ দেয়নি। তারা এক প্রকার আমাকে বাদ্ধই করেছে প্রতিষ্ঠানটি বিক্রি করতে।

শীর্ষ সংবাদ:
শরণখোলায় ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষনের শিকার এবার পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে আরকান আর্মির ৫ সদস্য লালমোহনে আমের মুকুলের ঘ্রাণে ভরে উঠেছে বাগানগুলো অসামাজিক কার্যক্রম চালানোর দায়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বোনসহ আটক ৪ কিশোরগঞ্জে বাকৃবির কৃষি প্রকৌশলীদের সম্প্রসারণ মাঠ সফর গাজীপুরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের কয়েক ঘন্টা পরই ফের দখল নরসিংদীতে বাস-কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষ, ২ চালক নিহত ভারতীয় যুবক কারাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে পালকিতে বর-কনে, গরুর গাড়িতে বরযাত্রী রুদ্ধদ্বার বৈঠক শেষে আমীর খসরু বললেন ‘কিছুই বলার নেই’ বড় দুঃসংবাদ পেল ইমরান খানের পিটিআই গাজীপুরে ভবনের ছাদ থেকে পড়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু ৩৮ বছর পর বিশ্ব কোরআন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের রেকর্ড ১৩ বছর পালিয়ে থেকেও শেষ রক্ষা হলো না, র‍্যাবের হাতে ধরা তানোরে আলুর দাম নিয়ে কৃষকদের দুশ্চিন্তা মহাসড়কে অবৈধ দোকান উচ্ছেদ অভিযান টেকনাফে হোয়াইক্যংয়ে এক দিন মজুরকে পিঠিয়ে হত্যা চাটমোহর উপজেলা আ. লীগ সভাপতির মৃত্যুতে এমপি মকবুলের শোক ঝিনাইদহে অবৈধভাবে মাটি কাটা ও বিক্রির অপরাধে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা জয়পুরহাটে পুলিশ সুপার ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত