অন্য প্রার্থীর এজেন্ট সেজে কাজ করছেন মেয়রসহ নৌকার গুরুত্বপূর্ণ সমর্থকরা

কুমিল্লায় নৌকার প্রচারণা করা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতারা অভিনব কায়দায় অন্য প্রার্থীর এজেন্ট হিসেবে নির্বাচনের মাঠে থাকবেন। এমন পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন এক স্বতন্ত্র প্রার্থী। ঘটনাটি কুমিল্লা-৪ (দেবিদ্বার) আসনের।

অভিযুক্ত ওই পাঁচজন হলেন, কুমিল্লা উত্তর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক লিটন সরকার। তিনি বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির এজেন্ট হয়েছেন। দেবিদ্বার উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন। তিনি ইসলামী ঐক্য জোটের এজেন্ট হয়েছেন। দেবিদ্বার পৌরসভার মেয়র সাইফুল ইসলাম শামীম। তিনি আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন।

তিনি হয়েছেন ন্যাশনাল পিপলস পার্টি এজেন্ট। কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও উত্তর জেলা যুবলীগের সভাপতি পদ প্রার্থী মো. আবু কাউছার অনিক। তিনি বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির এজেন্ট হয়েছেন। দেবিদ্বার উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক ইকবাল হোসেন। তিনি হয়েছেন বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের এজেন্ট।

বিজ্ঞাপন

অভিযোগকারী কুমিল্লা-৪ (দেবিদ্বার) আসনের ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ অভিযোগপত্রে লিখেন, উল্লেখিত ব্যক্তিরা আমার প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী নৌকা প্রতীকের রাজী মাহমুদ ফখরুলের কট্টর কর্মী ও সমর্থক। তারা প্রত্যেকেই নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী প্রচারণার সম্মুখ সারীতে থেকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। এমন কট্টর সমর্থকদের নিজের দলের নির্বাচনী এজেন্ট না হয়ে অন্য দলের প্রার্থীর এজেন্ট হওয়ায় জনমনে প্রশ্নের উদ্বেগ হয়েছে।

এবং তারা নৌকা প্রতীকে প্রার্থীর পক্ষে বিধি বহির্ভূতভাবে একজোট হয়ে ভোট কেন্দ্র দখল করে জাল ভোট দেয়ার জন্যেই ডামি প্রার্থীর নির্বাচনী এজেন্ট নিযুক্ত হয়েছে। উল্লেখিত ব্যক্তিদের মধ্যে লিটন সরকার, সাদ্দাম হোসেন ও আবু কাওছার অনিক বেশ কয়েকটি ফৌজদারি মামলার আসামি এবং ইতোমধ্যে তাদের বিরুদ্ধে আচরণ বিধি লঙ্ঘনের বিষয়ে রিটার্নিং অফিসার বরাবর অভিযোগ দেয়া হয়েছে। উল্লেখিত ব্যক্তিরা ডামি প্রার্থীদের নির্বাচনী এজেন্ট নিযুক্ত হওয়ায় নির্বাচনের দিন অনুমোদিত গাড়ি ব্যবহার করে প্রকৃতপক্ষে আমার প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী রাজী মোহাম্মদ ফখরুলের অনুকূলে বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে প্রভাব বিস্তার করবে এবং সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনকে বাধাগ্রস্ত করবে।

অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে দেবিদ্বার পৌরসভার মেয়র সাইফুল ইসলাম শামীম শুকবার (৫ জানুয়ারি) বলেন, আমাকে অন্য প্রার্থীরা যদি এজেন্ট রাখতে চায় তাহলে আমি থাকতেই পারি। গোপন কক্ষে ভোট কাটার কোন সুযোগ নেই। ভোট সুষ্ঠু ও অবাধ হয়কিনা এটা আমরা দেখার জন্য দেখতে পারি। কোন প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী তাদের এজেন্ট হিসেবে রাখতে চাইলে থাকতে পারি।

বিজ্ঞাপন

দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা নিগার সুলতানা বলেন, আমরা একটি অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগপত্রটি নির্বাচন অনুসন্ধান কমিটিকে ফরওয়ার্ড করা হয়েছে। এ বিষয়ে সত্যতা পেলে আমরা ব্যবস্থা নেব ।

শীর্ষ সংবাদ:
বড় দুঃসংবাদ পেল ইমরান খানের পিটিআই গাজীপুরে ভবনের ছাদ থেকে পড়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু ৩৮ বছর পর বিশ্ব কোরআন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের রেকর্ড ১৩ বছর পালিয়ে থেকেও শেষ রক্ষা হলো না, র‍্যাবের হাতে ধরা তানোরে আলুর দাম নিয়ে কৃষকদের দুশ্চিন্তা মহাসড়কে অবৈধ দোকান উচ্ছেদ অভিযান টেকনাফে হোয়াইক্যংয়ে এক দিন মজুরকে পিঠিয়ে হত্যা চাটমোহর উপজেলা আ. লীগ সভাপতির মৃত্যুতে এমপি মকবুলের শোক ঝিনাইদহে অবৈধভাবে মাটি কাটা ও বিক্রির অপরাধে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা জয়পুরহাটে পুলিশ সুপার ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়: ফুল দেওয়াতে সীমাবদ্ধ শিক্ষক সমিতির কার্যক্রম কালাইয়ে ৫৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটিতেও নেই ম্যানেজিং কমিটি শেরপুরে ২০ পরীক্ষার্থী বহিষ্কার, ১৯ শিক্ষককে অব্যাহতি বাকৃবিতে নারী শিক্ষার্থীকে উত্ত্যক্ত করায় তিন বহিরাগতকে মারধর ভাঙ্গুড়ায় স্বামীর সঙ্গে মনোমালিন্য, গৃহবধূর আত্মহত্যা রাজশাহীতে বড়ছে বীজ পেঁয়াজ চাষ রমজানে দ্রব্যমূল্য বাড়ালে কঠোর ব্যবস্থা: সালমান এফ রহমান শিক্ষার মাধ্যম হউক মাতৃভাষায় অক্ষুন্ন থাকুক ভাষার মর্যাদা নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে গুলির শব্দ নেই, মাঠে ফিরেছেন কৃষকরা মাদারীপুরে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৫